Home / লাইফস্টাইল / অবশেষে অপু-বুবলীকে নিয়ে মুখ খুললেন শাকিব

অবশেষে অপু-বুবলীকে নিয়ে মুখ খুললেন শাকিব

বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয়ো জুটি ছিল শাকিব-অপু জুটি। শাকিব খান বাংলাদেশের এক জন সুপার স্টার। ‘আড়ালের এই সময়টাতে শাকিব খানের স’ঙ্গে কথা হয়েছে কিনা? বুবলী বললেন, শাকিব খবর নেওয়ার চেষ্টা করেছে।

বেশ কয়েকবার চেষ্টা করেছে… গত ৬ জানুয়ারি বাংলাদেশ প্রতিদিনের শোবিজ বিভাগে ‘সময় হলেই খুলবে র’হস্যের জট’ শিরোনামে বুবলীর দেওয়া সাক্ষাৎকারভিত্তিক প্রতিবেদনে প্রতিবেদক শামছুল হক রাসেলের প্রশ্নের জবাবে এ অভিনেত্রী উপরের কথাগুলো বলেন।

কিন্তু দীর্ঘ সাক্ষাৎকারে শাকিবের স’ঙ্গে তার সম্প’র্কের গুঞ্জনের বি’ষয়টি তিনি পরিষ্কার করেননি। বলতে গেলে ধোঁয়াশাই রেখে দেন বহুল আলোচিত এ ব্যাপারটি। শাকিব-বুবলীকে নিয়ে দর্শক ও পাঠকের যে কৌতূহল তার কোনো সমাধান সূত্র পাওয়া যায়নি সে জবানীতে।

এ যেন বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ‘শেষের কবিতার’ শেষ পঙ্ক্তি ‘শেষ হইয়াও হইলো না শেষ’-এর মতোই অধরা। তার এ জবাবের রেশ ধরেই অভিনেতা শাকিব খানের কাছে জানতে চাইলাম, ‘আপনি কি আসলেই বুবলীর খবর নেওয়ার চেষ্টা করেছেন, আর কী খবরইবা জানতে চেয়েছেন?

এমন প্রশ্নের জবাবে শাকিবের ত্বরিত জবাব, ‘আরে ও তো আমার সহকর্মী, একজন সহকর্মীকে দীর্ঘদিন ধরে কেউ খুঁজে পাচ্ছে না, সহকর্মী হিসেবে তার খবর নেওয়াটা তো দায়িত্বের মধ্যেই পড়ে।

তাই খবর নিতেই তাকে ফোন দিয়েছিলাম’। পরের প্রশ্ন- ‘তা বুবলী কী বলেছিলেন?’ শাকিব বললেন, ‘না কোনো কথা হয়নি, ও কল রিসিভ করেনি, হয়তো ব্যস্ত ছিল’।

শাকিব-অপুর পর এবার শাকিব-বুবলী অধ্যায়ের সূত্রপাত। আর এ সূত্রপাতের আয়োজক তারাই। কারণ শাকিব-অপুর মধুর সংসার ভে’ঙে যাওয়ার উপাত্ত হিসেবে বুবলীর নামই ঘুরেফিরে বারবার ওঠে আসে।

শাকিবের স’ঙ্গে বুবলীর প্রেমের গল্পটা শুরুতেই শুনিয়েছিলেন অপু বিশ্বাস। শাকিব-অপু গো’পনে ২০০৮ সালে বিবাহবন্ধ’নে আবদ্ধ হলেও অপুর কথায় শাকিবের নির্দেশেই তা দীর্ঘদিন তাকে গো’পন রাখতে হয়েছিল।

২০১৬ সালের মার্চে হঠাৎ করেই অপু চলে যান লোকচক্ষুর অন্তরালে। চলচ্চিত্র বা মিডিয়ার কেউ তাকে খুঁজে পাচ্ছিলেন না। কে’টে গেল ১৪ মাস। অপুর কোনো খবর নেই। অপু আড়াল হওয়ার অনেক আগেই কিন্তু শাকিব-অপুর প্রেম আর পরিণয়ের গুঞ্জন আকাশে-বাতাসে উড়ে বেড়িয়েছে। কিন্তু দুজনই বরাবর তা অস্বীকার করে আসছিলেন।

এমনকি অপু আড়ালে চলে যাওয়ার পর মিডিয়ার পক্ষ থেকে শাকিবের কাছে অপুর খবর বারবার জানতে চাওয়া হয়েছিল। প্রতিবারই শাকিব খান বলেছিলেন, ‘অপুর খবর আমি কীভাবে জানব’। নিজেদের প্রেম-বিয়ের খবর অস্বীকার করে দুজনই বলেছিলেন, ‘সবই গুজব। আমরা দুজন সহকর্মী ও ভালো বন্ধু ছাড়া আর কিছুই নয়’।

শাকিব-অপু
২০১৬ সালে অপু আড়াল হওয়ার পর একমাত্র বাংলাদেশ প্রতিদিনের স’ঙ্গে যোগাযোগ রেখেছিলেন এ অভিনেত্রী। তখন বলেছিলেন, অনেক ক’ষ্ট আর ক্ষো’ভের কথা। অপু তার ক’ষ্টের কারণ ব্যাখ্যা করতে গিয়ে বুবলীর দিকেই আঙুল তুলেছিলেন। বলেছিলেন, ‘শাকিব আমাকে বিয়ে করার পর বিয়ের কথা গো’পন রাখাসহ সে যা বলেছে আমি তা মেনে নিয়েছি।

২০১৬ সালের মার্চে যখন বুলবুল বিশ্বাসের ‘রাজনীতি’ ছবির শুটিং করি তখন আমি প্রেগন্যান্ট। এ অবস্থাতেও শুটিং করে গেছি। শেষ পর্যন্ত যখন বেবি বাম্প আর গো’পন করা যাচ্ছিল না, তখনই আড়ালে চলে যাই।

অপু বলেছিলেন, ‘আমার ক’ষ্টটা ছিল বুবলীকে নিয়ে। আমি লক্ষ্য করলাম শাকিবের স’ঙ্গে বুবলীর প্রেমের সম্প’র্ক গড়ে উঠেছে। নানাজন আমাকে বি’ষয়টি জানিয়ে আসছিল। এ বি’ষয়ে শাকিবের কাছে জানতে চাইলে সে আমার স’ঙ্গে খা’রাপ ব্যবহার করত।

সে আমাকে বাচ্চা ন’ষ্ট করার কথা বলত। এতে আমি রাজি না হলে সে আমাকে এড়িয়ে চলতে থাকে। যখন কলকাতার একটি হাসপাতালে ২০১৬ সালের সেপ্টেম্বরে বাচ্চা ডেলিভারির জন্য ভর্তি হই তখন ২৭ সেপ্টেম্বর বাচ্চা হওয়ার সময় বা তার আগে ও পরে একবারের জন্যও হাসপাতালে আমাকে বা বাচ্চাকে দেখতে আসেনি শাকিব। সে তখন বুবলীকে নিয়েই ব্যস্ত ছিল।

বাচ্চাকে নিয়ে যখন দেশে ফিরি তখন সে আমার অনুরোধে আমার বাসায় বাচ্চা দেখতে আসত। আমি তাকে বি’ষয়টি সবাইকে জানানোর কথা বললে সে বলত, ‘এখন বি’ষয়টি সবাই জেনে গেলে আমার ফিল্ম ক্যারিয়ারের ক্ষ’তি হবে।

সময়মতো জানানো যাবে।’ আমি তার কথা মেনে নিয়ে তাকে জানাই, ‘এক শর্তে আমাদের বিয়ে ও বাচ্চার বি’ষয়টি গো’পন রাখতে পারি। আর তা হলো তুমি আর বুবলীর স’ঙ্গে ছবি করতে পারবে না।’

অপু বলেছিলেন, শাকিব আমার শর্ত মেনে নিয়েছিল, সে আমার কথা রাখায় আমিও খুশি হয়েছিলাম। কিন্তু না, এই খুশি বেশি দিন টেকেনি। ২০১৭ সালের ১০ এপ্রিল সকাল সকালই আমার মাথায় যেন আকাশ ভে’ঙে পড়ল।

একটি পত্রিকায় দেখলাম শাকিব-বুবলী জুটি বেঁ’ধে ‘রংবাজ’ শিরোনামের একটি ছবিতে অভিনয় করতে যাচ্ছে। শাকিব আমাকে দেওয়া প্রতিশ্রুতি ভাঙায় আমার রাগ-ক্ষো’ভ চ’রমে পৌঁছাল। আমিও সি’দ্ধান্ত নিলাম তার কথা রাখা আমার পক্ষে আর সম্ভব নয়।

আমি টিভি লাইভে এসে আমাদের প্রেম-বিয়ে আর বাচ্চার কথা দেশের মানুষকে জানালাম। অপুর কথায় এর পরের ইতিহাস তো সবারই জানা।

শাকিব-বুবলীর দর্শকরা এখন নাকি ২০১৬ সালে অপুর আড়াল হওয়ার স’ঙ্গে প্রায় ১১ মাস ধরে বুবলীর উধাও হওয়ার মিল খুঁজে পাচ্ছেন। দর্শকদের প্রশ্ন- ‘তাহলে কী অপুর পথেই হাঁটছেন বুবলী’। মানে শাকিব-বুবলীর প্রেম, পরিণয় আর স’ন্তান জ’ন্মের যে গুঞ্জন বর্তমান সময়ে কান ভারি করে রেখেছে তা-ই একদিন সত্যি হবে।

অপুর মতো বুবলীকেও কি দেখা যাবে শাকিবের বাচ্চা কোলে নিয়ে জনতার দরবারে হাজির হতে। বি’ষয়টি নিয়ে বাংলাদেশ প্রতিদিনে দেওয়া ৬ জানুয়ারির সাক্ষাৎকারে বুবলী বলেছেন, ‘আমি দর্শকদের তাদের আ’গ্রহের জায়গা থেকে ধ’ন্যবাদ ও সম্মান জানাব। তারাও আমার থেকে অনেক কিছু শুনতে চান, যেটা স্বাভাবিক।

About admin

Check Also

আবু ত্ব-হার মায়ের কাছে ফোন দিয়ে মুক্তিপণ দাবি

ইসলামী বক্তা আবু ত্ব-হা মুহাম্মদ আদনান ১০ জুন থেকে নিখোঁজ। সঙ্গে রয়েছেন তার সফরসঙ্গী আব্দুল …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *