Home / লাইফস্টাইল / ক’ঠোর লকডাউনেও শিল্প-কারখানাসহ যা খোলা থাকছে

ক’ঠোর লকডাউনেও শিল্প-কারখানাসহ যা খোলা থাকছে

কোভিড-১৯ সং’ক্র’মণ বেড়ে যাওয়ায় ১৪ এপ্রিল থেকে সারা দেশে সাত দিনব্যাপী ‘ক’ঠোর লকডাউন’ শুরু হচ্ছে। এই সময়ে গণপরিবহন ও স’রকারি-বেস’রকারি প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকলেও উৎপাদনমুখী কারখানা খোলা রাখার অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

সোমবার মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে জারি করা বিধিনি’ষেধের প্রজ্ঞাপনে এ ত’থ্য জানানো হয়েছে। এতে বলা হয়েছে— ১৪ এপ্রিল ভোর ৬টা থেকে ২১ এপ্রিল রাত ১২টা পর্যন্ত এসব নি’ষেধাজ্ঞা কার্যকর হবে।এই সময় সব স’রকারি, আধাস’রকারি, স্বায়ত্তশাসিত ও বেস’রকারি অফিস/আর্থিক প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে।

তবে শিল্পকারখানা স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় চালু থাকবে। নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের নিজস্ব পরিবহন ব্যবস্থাপনায় শ্র’মিকদের আনা-নেওয়া নিশ্চিত করতে হবে।লকডাউনে গার্মেন্টস, শিল্পপ্রতিষ্ঠান খোলা থাকছে।

জরুরি সেবা চালু থাকবে।দেশে ক’রোনাভা’ইরাসে সং’ক্র’মণের দ্বিতীয় ঢেউয়ে রো’গী ও মৃ’ত্যু লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়তে থাকায় এক সপ্তাহের এই ‘ক’ঠোর লকডাউনের’ ঘোষণা দিল স’রকার।

পোশাক শিল্পমালিকরা ‘লকডাউনের’ মধ্যেও কারখানা খোলা রাখার দাবি জানিয়ে আসছিলেন। বিজিএমইএ, বিকেএমইএ, বিটিএমএসহ আরও কয়েকটি সংগঠন রোববার ঢাকায় এক যৌথ সংবাদ সম্মেলন করেও এ দাবি তুলে ধরে।

লকডাউনের প্রস্তুতিতে রোববার বিকালে স’রকারের কয়েকটি দপ্তরের জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা এবং নীতিনির্ধারকদের স’ঙ্গে ব্যবসায়ী নেতাদের বৈঠক হয়। সেখানে উৎপাদনমুখী কারখানা চালু রাখার বি’ষয়ে নীতিগত সি’দ্ধান্ত হয়।

এর আগেও প্রথম দফার ‘লকডাউনে’ শিল্পকারখানা খোলা ছিল। দেশে ক’রোনার সং’ক্র’মণ বেড়ে যাওয়ায় স’রকার সারা দেশে এক সপ্তাহের ক’ঠোর বিধিনি’ষেধ জারি করে গত ৪ এপ্রিল। গত ৫ এপ্রিল ভোর ৬টা থেকে শুরু হওয়া সাত দিনের লকডাউন বা বিধিনি’ষেধের মেয়াদ ১১ এপ্রিল রাত ১২টায় শেষ হয়।

এ নিয়ে গত ৪ এপ্রিল মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়। এর পর তা ১৪ এপ্রিল ভোর ৬টা পর্যন্ত বাড়ানো হয়।তবে শুরু থেকেই লকডাউন প্রত্যাহারের দাবিতে রাজধানী ঢাকাসহ সারা দেশে বি’ক্ষো’ভ করেন ব্যবসায়ীরা।

About admin

Check Also

আবু ত্ব-হার মায়ের কাছে ফোন দিয়ে মুক্তিপণ দাবি

ইসলামী বক্তা আবু ত্ব-হা মুহাম্মদ আদনান ১০ জুন থেকে নিখোঁজ। সঙ্গে রয়েছেন তার সফরসঙ্গী আব্দুল …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *