Home / লাইফস্টাইল / মাকে দেখার ইচ্ছে পূরণ হলো না আব্দুল্লাহর

মাকে দেখার ইচ্ছে পূরণ হলো না আব্দুল্লাহর

‘দাত্রী মাকে দেখার ইচ্ছে পূরণ হলো না শি’শু আব্দুল্লাহর। এর আগেই না ফেরার দেশে চলে গেল সে। রোববার (২১ মা’র্চ) সকালে আশ্রয়দাতা পরিবারের ে ঢাকা যাওয়ার পথে ফরিদপুরে এক মর’্মান্তিক সড়ক দু’র্য় মা’রা যায় সে। একই ে মা’রা যান তার আশ্রয়দাতা ‘মা’ জোসেদা বেগমও।

মর’্মান্তিক এ সড়ক দু’র্য় তারা ছাড়াও আরও চারজন মা’রা গেছেন। যাদের সবার বাড়ি জে’লার মহেশপুর উপজে’লায় বাঁশবাড়িয়া ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামে। আব্দুল্লাহ ের পর থেকে মহেশপুর উপজে’লার ভারতীয় সীমা’ন্তের ভৈরবা বাজারপাড়ার আব্দুর র’শিদের স্ত্রী জোসেদার কাছে বড় হয়ে আসছিল।

SUGGESTED NEWS
Mgid
Mgid

Women Love These Great Tips To Making Your Teeth Look Whiter
Herbeauty

15 things only girls who live life to the maximum understand
Herbeauty

7 Most Startling Movie Moments We Didn’t Realize Were Insensitive
Herbeauty
স্থানীয়রা জানান, পাঁচ ছয় বছর আগে ওই এলাকায় গ’র্ভবতী এক ি আসেন। কিছুদিন পর ির ঘরে ফুটফুটে এক পুত্র ের হয়। এর কিছুদিন পর ওই ি এলাকা ছেড়ে চলে যান। এরপর থেকে জোসেদা বেগম শি’শুটিকে লালন পালন করে আসছিলেন। জোসেদা বেগম তার নাম রাখেন আব্দুল্লাহ। ঠিকানাহীন পথশি’শু আব্দুল্লাহ বেড়ে উঠছিল সেখানেই।

সড়ক দু’র্র বেশ কয়েকদিন আগে জাগো নিউজের প্রতিবেদকের ে কথা হয়েছিল শি’শু আব্দুল্লাহর ে। এ সময় সে তার মাকে দেখার প্রকাশ করে বলেছিল, সবাই আমাকে শুধু মা’রে। আমা’র মাকে আপনারা দেখেছেন। আমা’র মা নাকি ি। মাকে খুব দেখতে করে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, নি’হত জোসেদা বেগমকেও এলাকার সবাই ি বলেই জানে। ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজে’লার সীমা’ন্তবর্তী ভৈরবা বাজারের পাশে একটি ঝুপড়ি ঘরে তাদের বসবাস। আব্দুর র’শিদ কখনো ভ্যান চা’লায়, কখনো কাঠখড়ি কুড়িয়ে ‘বিক্রি করেন। র সামান্য আয় আর অন্যের দেয়া সাহায্যে কোনরকমে চলে তাদের সংসার। আব্দুর র’শিদ তার দ্বিতীয় । জোসেদার প্রথম মা’রা যাওয়ার পর বিয়ে হয় আব্দুর র’শিদের ে। তাদের সংসারে আরেক সদস্য আব্দুল্লাহ। যাকে বছর পাঁচ আগে কুড়িয়ে পেয়েছিলেন জোসেদা।

PROMOTED CONTENT
Mgid
Mgid

Short On Time? 10-Minute Workouts Are Just What You Need
Herbeauty

6 Strong Female TV Characters Who Deserve To Have A Spinoff
Herbeauty

7 Most Startling Movie Moments We Didn’t Realize Were Insensitive
Herbeauty
জোসেদার আগের পক্ষে একটি ছেলে ছিল। যে বড় হওয়ার ে ে তে রূপান্তরিত হন। নাম রাখেন কাজলী। পরে তিনি এলাকা ছেড়ে ঢাকায় চলে যায়। সেখানে তৃতীয় ের লোকদের ে মিশে বেশ টাকা পয়সা উপার্জন শুরু করেন। সে টাকাতে ঢাকায় কিছু সম্পদ তৈরি করেন।

এছাড়া একটি ইন্স্যুরেন্স কোম্পানিতে বীমা করেন। গত দুই বছর আগে আগু’নে দ’গ্ধ হয়ে মা’রা যায় কাজলী। এরপর তার রেখে যাওয়া সম্পদ ও ইন্স্যুরেন্সের টাকা পেতে আ’দালতে মাম’লা করেন জোসেদা। সম্প্রতি সেই মাম’লার সাকসেশন রায় হয়। ফলে প্রা’প্ত টাকা বুঝে নিতে জোসেদা বেগম , বা’দী-বিবা’দীসহ দুই আইনজীবী ও এলাকার কয়েকজন পরিচিত মানুষ নিয়ে রোববার সকালে ঢাকার উদ্দেশে রওনা হন।

পথিমধ্যে ফরিদপুরের মধুখালী উপজে’লার মাঝকান্দিতে পৌঁছালে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কে পাশের একটি ফিলিং স্টেশন থেকে একটি ট্রাক জ্বা’লানি নিয়ে মহাসড়কে ওঠার সময় মাইক্রোবাসটির ে সং’ঘর্ষ হয়। এতে আব্দুল্লাহ ও তার পালিত মা জোসেদাসহ মাইক্রোবাসের ছয়জন নি’হত হন। জোসেদার আব্দুর র’শিদ ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

ভৈরবা বাজারের ব্যবসায়ী শহিদুল ইসলাম জানান, একে এত মানুষ মা’রা যেতে পারে প্রথমে আমর’া বিশ্বা’স করছিলাম না। পরে টেলিভিশনে সংবাদ দেখে বিশ্বা’স হয়। তাদের মৃ’ত্যুর সংবাদ পাওয়ার পর এলাকা যেন মৃ’ত্যুপুরী মনে হচ্ছে। সবার মধ্যে শো’ক ছড়িয়ে পড়েছে।

About admin

Check Also

আবু ত্ব-হার মায়ের কাছে ফোন দিয়ে মুক্তিপণ দাবি

ইসলামী বক্তা আবু ত্ব-হা মুহাম্মদ আদনান ১০ জুন থেকে নিখোঁজ। সঙ্গে রয়েছেন তার সফরসঙ্গী আব্দুল …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *