Home / লাইফস্টাইল / লকডাউনে রোজগার নেই, পরনের জামাটুকু খুলে ছে’লেকে ঘর থেকে বার করে দিল বাবা! বৌমা’র স’ঙ্গেও ঘৃণ্য আচরণ

লকডাউনে রোজগার নেই, পরনের জামাটুকু খুলে ছে’লেকে ঘর থেকে বার করে দিল বাবা! বৌমা’র স’ঙ্গেও ঘৃণ্য আচরণ

বাড়ির অমতে নিজের পছন্দ করা মে’য়েকে বিয়ে করেছিলেন। এখানেই সমস্যার সূত্রপাত।

বিয়ের পর স্ত্রী’কে বাড়িতে নিয়ে আসতেই চ’রম অশান্তি। ছে’লে-বৌমাকে কোনওভাবেই স্বীকার করছিলেন না বাবা-মা। স’ঙ্গে আবার পণ না পাওয়ার ক্ষো’ভও রয়েছে। পূর্ব মেদিনীপুরের কাঁথির দম্পতি মেহেবুব দাস ও সুমিতা দাসের লড়াই কিন্তু আরও কঠিন।

স্ত্রী’ সুমিতার কথায়, স্বা’মীর কথা ভেবে শ্বশুরবাড়িতে সব অ’ত্যাচার মেনেই থাকছিলেন তিনি। কিন্তু কোনও না কোনও ছুতোতে অ’ত্যাচার চলতই। তাঁর বিয়ের গয়না (যার বাজারমূ’ল্য ১০ লক্ষ টাকা) শ্বশুর, শাশুড়ি কেড়ে নেয় বলেও অ’ভিযোগ।

চলত অ’ত্যাচারও। এমনটাই অ’ভিযোগ অ’সহায় মেহেবুব ও তাঁর স্ত্রী’র। এরপর কোনওমতে নিজেদের প্রা’ণ বাঁচিয়ে ভাড়া বাড়িতে এসে সংসার পাতেন মেহেবুব সুমিতা।

কিন্তু মাঝে সেই লকডাউন! টিউশন করে যেকটা টাকা আয় করতেন, তাও বন্ধ হয়ে যায় মেহেবুবের। ফলে টাকার অভাবে ভাড়া বাড়ি ছাড়তে হয়। বা’ধ্য হয়েই ফের বাবার দ্বারস্থ হন ছে’লে। অ’ভিযোগ, বাবা তাঁকে মা’রধর করেন। এমনকি পরনের পোশাকটুকুও খুলে নেনে যেহেতু সেটা নিজে কিনে দিয়েছিলেন।

সুমিতা নিজের বাপেরবাড়ি থেকে আনা গয়না ফেরত চাইলে শ্বশুর তাঁর স্বা’মীকে মা’রধর করে বলেও অ’ভিযোগ। এরপর অ’সহায় স্বা’মী-স্ত্রী’ ১ জুলাই মন্দারমণি

কোস্টাল থা’নায় অ’ভিযোগ দা’য়ের করেন। পু’লিস গিয়ে দেখে মেহেবুবের বাড়িতে তালা ঝুলছে। তাঁর বাবা-মা বাড়িতে তালা ঝু’লিয়ে অন্যত্র চলে গিয়েছেন।

এখনও এই ঘ’টনার কোনও সুরাহা হয়নি। বা’ধ্য হয়েই পোস্টার হাতে রাস্তায় ধর্নায় বসেছেন অ’সহায় দম্পতি। পথচলতি সাধারণ মানুষ দেখছেন, আর প্রশ্ন করছেন, “বাবা-মা, শ্বশুর-শাশুড়ির ও’পর অ’ত্যাচারের খবর মেলে আখছার, কিন্তু বাবা-মা যে নিজের স’ন্তানের স’ঙ্গে এমনটা করতে পারে, তা তো আগে দেখিনি।”

About admin

Check Also

আবু ত্ব-হার মায়ের কাছে ফোন দিয়ে মুক্তিপণ দাবি

ইসলামী বক্তা আবু ত্ব-হা মুহাম্মদ আদনান ১০ জুন থেকে নিখোঁজ। সঙ্গে রয়েছেন তার সফরসঙ্গী আব্দুল …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *